HTML কি

HTML কি এবং HTML কিভাবে কাজ করে?

এই নিবন্ধে আমরা জানব HTML কী। অন্যান্য বিষয়ে যেমন কঠোর পরিশ্রম এবং নিষ্ঠার প্রয়োজন, ব্লগিংও তেমনি। এবং ব্লগিং এর জন্য সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ যে জিনিসটি হওয়া উচিত তা হল “জ্ঞান”। ব্লগিং শুরু করার জন্য সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ বিষয় হল আপনার নিজের একটি ওয়েবসাইট তৈরি করা। আর ওয়েবসাইট বানাতে কি কি দরকার? এইচটিএমএল সম্পর্কে পুঙ্খানুপুঙ্খ জ্ঞান থাকতে হবে। আপনি যদি ব্লগিং জগতে সফলতা চান, তাহলে একজন ব্লগারের জন্য এইচটিএমএল সম্পর্কে জ্ঞান থাকা খুবই গুরুত্বপূর্ণ।

কিন্তু সকলেরই html সম্বন্ধে সম্পূর্ণ জ্ঞান থাকে না এবং যারা ব্লগিং করে ক্যারিয়ার শুরু করতে চান এবং একজন সফল ব্লগার হতে চান, তাদের জন্য এই জ্ঞান থাকা খুবই জরুরী। আজ এই আর্টিকেলে আমি আপনাদের বলতে যাচ্ছি HTML কি ? HTML কিভাবে কাজ করে সেই সম্পর্কে বিস্তারিত। এইচটিএমএল সম্পর্কে বিস্তারিত জানার জন্য এই আর্টিকেলটি সম্পূর্ণ পড়ুন।

HTML কি?(What is HTML)

আসুন এখন জেনে নেই HTML কি? HTML এর পূর্ণরুপ হল হাইপারটেক্সট মার্কআপ ল্যাঙ্গুয়েজকে (Hyper text markup language) সংক্ষিপ্ত নামে HTML বলি। HTML হল একটি কম্পিউটার ভাষা যা একটি ওয়েবসাইট তৈরি করতে ব্যবহৃত হয়। এবং এটিকে রঙ দিতে বা একে আরো সুন্দরভাবে সাজাতে CSS ব্যবহার করা হয় ।

অন্যান্য কম্পিউটার ল্যাঙ্গুয়েজ যেমন C, C++, JAVA ইত্যাদির তুলনায় এই ভাষাটি খুবই সহজ, যে কোনো ব্যক্তি খুব সহজেই এবং খুব কম সময়ে এটির ব্যবহার শিখতে পারে।

এইচটিএমএল এর সাহায্যে ওয়েবসাইট তৈরি হওয়ার পর বিশ্বের যে কোন মানুষ ইন্টারনেটের মাধ্যমে সেই ওয়েবসাইট দেখতে পারে। এইচটিএমএল 1980 সালে জেনেভায় পদার্থবিদ টিম বার্নার্স-লি আবিষ্কার করেছিলেন। এইচটিএমএল একটি প্ল্যাটফর্ম-স্বাধীন ভাষা যা উইন্ডোজ, লিনাক্স, ম্যাকিনটোশ ইত্যাদির মতো যেকোনো প্ল্যাটফর্মে ব্যবহার করা যেতে পারে।

HTML এর ব্যবহার

HTML ব্যবহার করে একটি ওয়েবপেজ তৈরি করা খুবই সহজ, এর জন্য আপনার দুটি জিনিসের প্রয়োজন – প্রথমটি হল নোটপ্যাডের মতো একটি সাধারণ Text Editor যাতে এইচটিএমএল কোড লেখা যায় এবং দ্বিতীয়টি ইন্টারনেট এক্সপ্লোরার, গুগল ক্রোম, মজিলা ফায়ারফক্স ইত্যাদি বা তাদের মত একটি ব্রাউজার।

এইচটিএমএল ছোট ছোট কোডের একটি সিরিজ দিয়ে তৈরি যা আমরা নোটপ্যাডে লিখি, এই ছোট কোডগুলিকে ট্যাগ বলা হয়। HTML ট্যাগগুলি ব্রাউজারকে বলে যে ট্যাগের ভিতরে লেখা উপাদানগুলি ওয়েবসাইটটিতে কীভাবে এবং কোথায় দেখানো উচিত।

এইচটিএমএলে এমন অনেক ট্যাগ আছে যা গ্রাফিক্স, ফন্ট সাইজ এবং রঙ ব্যবহার করে আপনার ওয়েবসাইটকে একটি আকর্ষণীয় চেহারা দেয়। এইচটিএমএল কোড লেখার পর, আপনার ডকুমেন্টটি সংরক্ষণ করতে হবে, এটি এইচটিএমএল ফাইলের নামের এক্সটেনশন .HTML দিয়ে সংরক্ষণ করতে হবে। এটি লিখতে হবে .htm বা .html দিয়ে তবেই এটি আপনার ব্রাউজারে আপনার html ডকুমেন্ট দেখাবে অন্যথায় নয়।

সংরক্ষণ করার পরে, আপনাকে আপনার HTML নথি দেখতে ব্রাউজার খুলতে হবে। সেই ব্রাউজারটি আপনার এইচটিএমএল ফাইলটি পড়বে এবং আপনার সঠিকভাবে টাইপ করা কোডটি অনুবাদ করবে এবং আপনার ওয়েবসাইটটি সঠিকভাবে দেখাবে যেমনটি আপনি কোড লেখার সময় ভেবেছিলেন।

আপনার ওয়েব ব্রাউজার ওয়েবসাইটে html ট্যাগ দেখায় না, কিন্তু আপনার ডকুমেন্ট সঠিকভাবে দেখানোর জন্য সেই ট্যাগগুলি ব্যবহার করে।

HTML ট্যাগ কি?

আপনারা সবাই নিশ্চয়ই জানেন যে HTML কি । আসুন এবার জেনে নেই এর কিছু মৌলিক ট্যাগ সম্পর্কে। HTML ট্যাগ অন্যান্য টেক্সট থেকে সম্পূর্ণ আলাদা, যার সাহায্যে html কোড লেখা হয়। HTML ট্যাগ হল এমন কীওয়ার্ড যা আমরা দুটি বন্ধনীর মধ্যে রাখি যেমন <html>। ট্যাগের সাহায্যে, আমরা আমাদের ওয়েবসাইটকে একটি নতুন রূপ দিতে পারি, এতে আমরা ছবি, টেবিল, রঙ ইত্যাদি ব্যবহার করে একটি ওয়েবপেজ তৈরি করতে পারি।

বিভিন্ন ট্যাগ বিভিন্ন উপায়ে কাজ করে। আপনি যখন ব্রাউজারের মাধ্যমে আপনার এইচটিএমএল পৃষ্ঠাটি দেখেন, তখন এই সমস্ত ট্যাগগুলি এতে দৃশ্যমান হয় না, শুধুমাত্র তাদের প্রভাব দৃশ্যমান হয়। HTML-এ প্রায় 142টির মত ট্যাগ আছে যা আমরা একটি ওয়েবসাইট তৈরি করতে ব্যবহার করি।

আমি আপনাকে সেই বিশেষ কিছু ট্যাগের কথা বলি, যেগুলো ওয়েবসাইট তৈরির জন্য ব্যবহার করা খুবই গুরুত্বপূর্ণ। HTML-এ কোডিং লেখা শুরু করার আগে, একটি মন্তব্য লেখা হয় যাতে লেখক জানতে পারেন যে HTML পৃষ্ঠাটি কী জন্য তৈরি করা হয়েছে।

মন্তব্য লেখা বাধ্যতামূলক নয়, এটি আপনার উপর নির্ভর করে আপনি আপনার html নথির জন্য মন্তব্য লিখতে চান কি না। HTML এ কমেন্ট <!”….”> লেখা আছে, ওয়েব ব্রাউজারে এই কমেন্টটি দেখতে পাবেন না।

মন্তব্য লেখার পর সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ ট্যাগ হল হেডার ট্যাগ, যেখান থেকে আমরা html ডকুমেন্ট সম্পর্কে তথ্য পাই। মন্তব্য ট্যাগ ব্যতীত, অন্য সব html ট্যাগের একটি শুরুর ট্যাগ এবং একটি শেষ ট্যাগ রয়েছে। যেমন:

<head> ………………… </head>

আপনি যদি শুরুর ট্যাগ লেখার পর এন্ড ট্যাগ না লেখেন, তাহলে সেই ট্যাগের প্রভাব আপনার ব্রাউজারে দেখা যাবে না, তাই শেষ ট্যাগ লেখা বাধ্যতামূলক। এইচটিএমএল ট্যাগের কীওয়ার্ড কেস-সেনসিটিভ না, এর মানে আপনি ট্যাগের নাম বড় অক্ষরে বা ছোট অক্ষরে লিখতে পারেন, এটি সম্পূর্ণরূপে আপনার উপর নির্ভর করে আপনি কীভাবে আপনার ট্যাগ লিখতে চান।  হেড ট্যাগের মাঝখানে আমি যে পরিমাণ ডট দিয়েছি তার মানে আপনি তার জায়গায় যেকোনো লেখা লিখতে পারবেন।

Title ট্যাগটি হেডার ট্যাগের ভিতরে লেখা থাকে যা আমাদের এইচটিএমএল পেজের শিরোনাম বা টাইটেল দেখায় যেমন,

<title> এটি আমার প্রথম ওয়েব পেজ </title>

যখন আমরা ব্রাউজারে আমাদের এইচটিএমএল পেজটি দেখি, তখন আমরা ব্রাউজারের টাইটেল বারের উপরের বাম পাশে এই (এটি আমার প্রথম ওয়েব পেজ) লেখাটি দেখতে পাব।

টাইটেল ট্যাগের পরে বডি ট্যাগ লেখা হয়। এই ট্যাগে যে সমস্ত ট্যাগ আছে তা ওয়েবপেজটিকে আকর্ষণীয় করতে ব্যবহার করা যেতে পারে। যেমন,

<body bgcolor=” yellow ” text=” blue “>
হ্যালো! আপনি কেমন আছেন?
</body>

এখানে bgcolor মানে ব্যাকগ্রাউন্ড কালার যেখানে আপনার ওয়েবপেজের ব্যাকগ্রাউন্ড কালার হলুদ দেখাবে এবং আমার লেখা এই লেখার রং নীল দেখাবে। একইভাবে, আপনি <body> ট্যাগের ভিতরে অনেক ট্যাগ ব্যবহার করে আপনার ওয়েবপেজটিকে সুন্দর করতে পারেন ।

আপনার html ডকুমেন্ট সবসময় এই ফর্মে থাকা উচিত।

<html>
<head>
<title> ——————— </title>
</head>
<body>
<h1> —— </h1> – একে বলা হয় হেডিং ট্যাগ যা ছোট হাতের অক্ষরে দেখা যায়।
<p> ——– </p>  – এটিকে প্যারাগ্রাফ ট্যাগ বলা হয় যেখানে আপনি অনুচ্ছেদ লিখতে পারেন।
<b> ——– </b>  – এটাকে বোল্ড ট্যাগ বলা হয় যা আপনার টাইপ করা লেখাটিকে বোল্ড করে তুলবে।
</body>
</html>

এরকম আরো অনেক ট্যাগ আছে যেগুলো বডি ট্যাগের ভিতরে লিখতে পারেন, এখানে সব ট্যাগ সম্পর্কে বলা সম্ভব নয়, তাই আমি শুধু বেসিক ট্যাগের কথাই বলেছি। HTML এর সকল ট্যাগ সম্পর্কে জানার জন্য ভিজিট করুন w3schools এই ওয়েবসাই।

আপনি আজ কি শিখলেন

আজ আমরা জেনেছি,  এইচটিএমএল কি (html কি), এটি কীভাবে কাজ করে এবং এর কিছু মৌলিক ট্যাগ । আমি আগেই বলেছি যে এইচটিএমএল কম্পিউটারের একটি খুব সাধারণ ল্যাগুয়েজ, যে কেউ এটি সহজেই শিখতে পারে।

এবং একজন ব্লগারের জন্য এটি সম্পর্কে জ্ঞান থাকা গুরুত্বপূর্ণ যাতে তিনি তার ওয়েবসাইটটি ভালভাবে ডিজাইন করতে পারেন। আশা করি আপনি এই নিবন্ধটি থেকে HTML সম্পর্কে কিছু শিখতে পেরেছেন। আপনার যদি এখনও কোন প্রশ্ন থাকে, নীচে মন্তব্য করুন, আমি অবশ্যই আপনার মন্তব্য এর উত্তর দিব, ইংশা-আল্লাহ্।

Leave a Comment

Your email address will not be published.