ইথারনেট কি

ইথারনেট কি? ইথারনেট কত প্রকার এবং কি কি?

আপনি কি জানেন ইথারনেট কী এবং ইথারনেট  কত প্রকার ও কি কি? আজ আমরা ইথারনেট নিয়ে এই বিষয়ে আলোচনা করব। তবে তার আগে কিছু গুরুত্বপূর্ণ বিষয় জেনে নেওয়া যাক। 

আমাদের পৃথিবীতে ইন্টারনেট এসেছে অনেক বছর হয়ে গেছে এবং এর সাথে এসেছে বিভিন্ন ধরনের প্রযুক্তি। তার মধ্যে একটি হল ইথারনেট। যাইহোক, আপনি হয়ত জানেন না যে যেখানে ইন্টারনেট আছে, সেখানে ইথারনেটও আছে। যখনই এই নেটওয়ার্ক সম্পর্কে কোথাও কোনো আলোচনা হয় তখনই আপনাকে অবশ্যই LAN লোকাল এরিয়া নেটওয়ার্ক সম্পর্কে জানতে হবে। 

আপনারা নিশ্চয়ই ইথারনেটের নাম শুনেছেন, তো চলুন নতুন কিছু শিখি, ইথারনেট কি এবং এটি কিভাবে কাজ করে।

ইথারনেট কি (What is Ethernet)

ইথারনেট উচ্চারিত হয় “ইথার নেট” (Ethernet)। এটি একটি লোকাল এরিয়া নেটওয়ার্ক প্রযুক্তি। এই প্রযুক্তির সাহায্যে কম্পিউটার এবং নেটওয়ার্কিং ডিভাইস একে অপরের সাথে সংযুক্ত এবং তথ্য আদান প্রদান করা হয়। যেমনটা করা হয় অফিসে, কলেজে, এবং স্কুলে। “ইথারনেট” হল TCP/IP লেয়ারের ডেটা লিঙ্ক (Datalink Layer) স্তরের প্রোটোকল।

এই ইথারনেট প্রযুক্তির সাহায্যে ল্যানের বিভিন্ন কম্পিউটার নিজেদের মধ্যে তথ্য আদান-প্রদান করতে সক্ষম। এই TCP/IP প্রোটোকল মেনে ইথারনেটের কাজ করে, যে ফর্ম্যাটে তথ্য প্রেরণ করা হবে। এটি কোনো ত্রুটি ছাড়াই একটি ল্যানে এক কম্পিউটার থেকে অন্য কম্পিউটারে তথ্য পেতে পারেন।

Ethernet LAN নেটওয়ার্কিং ডিভাইসগুলির মধ্যে তথ্যের Communication প্রদান করে । এটি আপনাকে আরও ভালভাবে ব্যাখ্যা করার জন্য আমাদের একটি সাধারণ উদাহরণ দেওয়া যাক। আপনার কম্পিউটার LAB এর মত। যেখানে ইথারনেট ক্যাবল মানে সমস্ত কম্পিউটার শুধুমাত্র টুইস্টেড পেয়ার ক্যাবলের সাহায্যে একে অপরের সাথে সংযুক্ত থাকে। এখানে আপনার কম্পিউটারে যে প্রযুক্তি ব্যবহার করে তথ্য পৌঁছেছে, সেই প্রযুক্তির নাম ইথারনেট। যাকে ইথারনেট প্রোটোকলও বলা হয়। যাইহোক, আপনি অবশ্যই জানেন যে OSI নেটওয়ার্ক মডেলটিতে 7টি স্তর রয়েছে, যার মধ্যে “ইথারনেট” data link layer এবং “physical layer” উভয় ক্ষেত্রেই কাজ করে ৷

ডাটা ট্রান্সমিশনে ইথারনেট দুই ধরনের ইউনিট ব্যবহার করে, প্রথম Frame এবং দ্বিতীয় packet (যেমন আপনি প্যাকেটে চাল ওজন করেন, আপনি এটিকে কিলোগ্রামে ওজন করেন এবং টনেও, একইভাবে, ডেটা ফ্রেম এবং প্যাকেট ফর্ম উভয় নেটওয়ার্কের মধ্য দিয়ে যায়)। ফ্রেমটি শুধুমাত্র Payload এর সাথে নেওয়া হয় না তবে এটি MAC Address সাথেও নেওয়া হয়। MAC Address ঠিকানা কম্পিউটারের ঠিকানা, যেমন এটি প্রেরক এবং প্রাপক কম্পিউটারের ঠিকানা গ্রহণ করতে পারে।

ইথারনেটের ইতিহাস

প্রাথমিকভাবে ইথারনেটকে বলা হত Alto Aloha Network। যে সংস্থাটি এটি তৈরি করে তার নাম হল Xerox PARC, যেটি 1973 সালে Robert Metcalfe অন্যান্য কিছু লোকের সাথে আবিষ্কার করেছিলেন । এটিই প্রথম নেটওয়ার্ক যা CSMA/CD (Carrier Sense Multiple Access/ Collision Detection) প্রযুক্তি ব্যবহার করেছিল। তখন থেকে ইথারনেট হল সবচেয়ে দ্রুত এবং সবচেয়ে নির্ভরযোগ্য নেটওয়ার্ক। যা এখন পর্যন্ত সর্বত্র বিদ্যমান। 1980 সাল নাগাদ, এটি বিশ্বের প্রতিটি কোণে ব্যবহৃত হচ্ছে।

শুরুতে ইথারনেট প্রতি সেকেন্ডে সর্বোচ্চ ১০ মেগা বিট গতিতে চলত। এরপর পরিবর্তনশীল প্রযুক্তির কারণে এটি 100Mbps গতিতে কাজ করতে শুরু করে, যাকে বলা হয় ফাস্ট ইথারনেট। পরে 1000Mbps যাকে গিগাবিট ইথারনেট বলা হত এবং এখন 10 গিগাবিট ইথারনেট পর্যন্ত গতি রয়েছে। যা এখন দরজার দ্রুততম। সাধারণত, ইথারনেট তারের দৈর্ঘ্য 100 মিটার, তবে এই তারের সাহায্যে আমরা সহজেই স্কুল, কলেজ এবং অফিস সংযোগ করতে পারি।

ইথারনেট নেটওয়ার্কের জন্য কি উপাদান প্রয়োজন?

  1. ইথারনেট তার (Ethernet Cable)
  2. ইথারনেট হাব (Ethernet Hub)
  3. ক্রসওভার কেবল (Crosover Cable)
  4. রাউটার (Router)

1) ইথারনেট কেবল (Ethernet Cable)

ইথারনেট ক্যাবলের সাহায্যে দুই বা ততোধিক কম্পিউটার একসাথে সংযুক্ত করা যায়। যার মাধ্যমে ডেটা বা তথ্য আসা-যাওয়া করা যায়। একটি LAN নেটওয়ার্কে শুধুমাত্র এক ধরনের ইথারনেট কেবল ব্যবহার করা হয়। এই তারের উদাহরণ হল টুইস্টেড পেয়ার তার এবং ফাইবার অপটিক্স তার।

2) ইথারনেট হাব (Ethernet Hub)

এটি একটি নেটওয়ার্কিং ডিভাইস যার মাধ্যমে আমরা সমস্ত কম্পিউটারের তারের সাথে সংযোগ করতে পারি। হাব একটি নেটওয়ার্কের সমস্ত কম্পিউটারকে অ্যাপসার সাথে সংযুক্ত করে। একটি হাবে অনেক ইথারনেট পোর্ট আছে। যার মধ্যে এই তারগুলি সংযুক্ত করা হয়।

3) ক্রসওভার কেবল (Crosover Cable)

আমরা ইথারনেট তারের পরিবর্তে এই তারটি ব্যবহার করতে পারি। এটিরও একই কাজ, যখন আমরা দুই বা ততোধিক কম্পিউটারকে অপাসে সংযুক্ত করি, তখন এটি ব্যবহার করা হয়।

4) রাউটার (Router)

আমরা যখনই ওয়াইফাই নেটওয়ার্ক নিয়ে কথা বলি আপনি নিশ্চয়ই এর নাম শুনেছেন। এই শব্দটি অবশ্যই শোনা যায়। রাউটার হল একটি নেটওয়ার্কিং ডিভাইস যার মাধ্যমে নেটওয়ার্ক থেকে আসা ডেটা কম্পিউটারে পৌঁছায়। আর কম্পিউটার থেকে ডাটা চলে যায় অন্য নেটওয়ার্কে। এই ডিভাইস রুট মানে রুট নির্ধারণ করে। এতক্ষণে আপনি জানেন ইথারনেট কি। এখন আপনি জানবেন তারা কত প্রকার এবং কি কি।

ইথারনেট নেটওয়ার্কের প্রকারভেদ (Types Of Ethernet)

 ইথারনেট নেটওয়ার্ককে সাধারণত ৪ ভাগে ভাগ করা হয়ে থাকে। নিন্মে তার প্রত্যেক প্রকার সম্পর্কে বিস্তারিত আলোচনা করা হল।

1. ইথারনেট (Eternet)

আপনি জানতে পেরেছেন যে ইথারনেট একটি ল্যান প্রযুক্তি। একটি স্ট্যান্ডার্ড ইথারনেট নেটওয়ার্ক প্রতি সেকেন্ডে 10 মেগাবিট এ কাজ করে। এই প্রযুক্তির কর্মক্ষমতা বেশ ভালো কারণ এটি সস্তা এবং উচ্চ গতির ডেটা ট্রান্সমিশন দেয়। আমরা সহজেই এটি ইনস্টল করতে পারি। এটি বিশ্বের সমস্ত কম্পিউটারের একটি ইউনিভার্সাল ল্যান নেটওয়ার্ক প্রযুক্তি। 10BASE-T এই ইথারনেট প্রযুক্তির একটি উদাহরণ। এটি সমস্ত প্রোটোকল সমর্থন করে, তাই এটি বিশেষ।

ইলেকট্রিক্যাল অ্যান্ড ইলেকট্রিক ইঞ্জিনিয়ারিং ইনস্টিটিউট IEEE স্ট্যান্ডার্ড 802.3 নামে একটি ইথারনেট স্ট্যান্ডার্ড তৈরি করেছে। এই স্ট্যান্ডার্ডে কিছু নিয়ম তৈরি করা হয়েছিল যাতে সমস্ত ইথারনেট নেটওয়ার্ক সহজেই কনফিগার করা যায়। এর সাথে, এই নিয়মের সাহায্যে, এই নেটওয়ার্কের সমস্ত উপাদান একে অপরের সাথে যোগাযোগ করতে পারে। এবং যোগাযোগ করতে সক্ষম হবেন।

2. দ্রুত ইথারনেন্ট (Fast Ethernet)

ধীরে ধীরে ইথারনেটের পরবর্তী মান আবির্ভূত হয়। যাকে বলা হতো ইথারনেট স্ট্যান্ডার্ড IEEE 802.3u। এর ট্রান্সমিশন স্পিড প্রায় 10 Mbps থেকে 100 Mbps। ইথারনেট কেবলে সামান্য কিছু পরিবর্তন করা হয়েছিল এবং দ্রুত ইথারনেট তৈরি করা হয়েছিল। “ভিডিও, মাল্টিমিডিয়া, গ্রাফিক্স, ইন্টারনেট” এর ক্ষেত্রে ফাস্ট ইথারনেটের থ্রুপুট খুবই ভালো। এতে ত্রুটি সনাক্তকরণ এবং সংশোধনের পদ্ধতি ব্যবহার করা হয়েছে।

3 ধরনের ফাস্ট ইথারনেট রয়েছে: 100BASE-XT এটি লেভেল 5 UTP (আনশিল্ডেড টুইস্টেড পেয়ার) তারের সাথে ব্যবহার করা হয়। 100BASE-FX একটি ফাইবার অপটিক্স তারের সাথে ব্যবহার করা হয়। 100BASE-T4 যা 2টি অতিরিক্ত তার ব্যবহার করে। এটি লেভেল 3 UTP এর সাথে ব্যবহার করা হয়। 100BASE-TX যা খুবই জনপ্রিয় ফাস্ট ইথারনেট স্ট্যান্ডার্ড।

আপনি যদি ইতিমধ্যে বিদ্যমান 10BASE-T ইথারনেট পরিবর্তন করে 100BASE-T কনফিগার করতে চান। তাই কিছু বিষয় মূল্যায়ন করা আপনার জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ। যেমন কতজন ব্যবহারকারী আছে এবং কি হার্ডওয়্যার প্রয়োজন। এখন আমরা যদি আরও কথা বলি, গিগাবিট ইথারনেট যা বিশ্বের পরবর্তী প্রযুক্তি। যা ফাস্ট ইথারনেটের চেয়ে ভালো ডাটা স্পীড দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দেয়। তো চলুন জেনে নেওয়া যাক সে সম্পর্কে।

3. গিগাবিট ইথারনেট (Gigabit Ethernet)

মাল্টিমিডিয়া এবং ভয়েস ওভার আইপি (ভিওআইপি) ব্যবহার করার জন্য একটি দ্রুত চলমান নেটওয়ার্কের প্রয়োজন ছিল। এই গতি অর্জনের জন্য গিগাবিট ইথারনেট তৈরি করা হয়েছিল। এই “ইথারনেট-ওভার-কপার” 1000BASE-T, 1000BASE-SX, 1000BASE-LX, এবং GigE এর সব উদাহরণ। এটি IEEE 802.3z স্ট্যান্ডার্ডে সেট করা হয়েছে। সাম্প্রতিক সময়ে, এটি অনেক কোম্পানির খাগড়ার হাড়ের মতো কাজ করে। এটি 100BASE-T এর চেয়ে 10 গুণ দ্রুত।

আমরা গিগাবিট ইথারনেটে বিদ্যমান 10 এবং 100 Mbps কার্ড রাখতে পারি। যার সাহায্যে আমরা সুইচ, রাউটার এবং সার্ভারকে আন্তঃসংযোগ করতে পারি এবং কর্মক্ষমতা বাড়াতে পারি। আমরা যদি ডেটা লিঙ্ক লেয়ারের উপরের স্তর থেকে দেখি, তাহলে গিগাবিট দেখতে অন্যান্য ইথারনেটের মতোই দেখাবে। এবং এর বাস্তবায়নও একই। ইথারনেট অর্থ দ্রুত এবং গিগাবিট উভয়ের মধ্যে গুরুত্বপূর্ণ পার্থক্য শুধু এই। গিগাবিট ইথারনেট ফুল ডুপ্লেক্স সাপোর্ট করে এবং ডাটা রেটও খুব ভালো।

4. 10 গিগাবিট ইথারনেট (10 Gigabit Ethernet)

এটি দ্রুততম এবং সবচেয়ে আধুনিক ইথারনেট স্ট্যান্ডার্ড  । যা IEEE 802.3ae সংস্করণে আসে। এর ডেটা স্থানান্তর হার সম্পর্কে কথা বললে, এটি 10 Gbps- এ কাজ করে । এটি আগের গিগাবিট ইথারনেটের চেয়ে 10 গুণ দ্রুত।

অন্যান্য ইথারনেট থেকে ভিন্ন, এটি সম্পূর্ণরূপে অপটিক্যাল ফাইবার কেবল সংযোগে কাজ করে। এটি স্ট্যান্ডার্ড LAN ডিজাইন থেকে বেশ ভিন্ন কারণ এটি সম্প্রচারের অর্থের সমস্ত নোডগুলিতে ডেটা প্রেরণ করে। এখন পর্যন্ত এটি বাণিজ্যিক মানের অনুমোদন পায়নি। কারণ এটি সম্পূর্ণ নতুন। এবং যাইহোক, এর মিডিয়া টাইপ নীচের টেবিলে দেওয়া হয়েছে।

আপনি টেবিল দেখে সহজেই সবকিছু বুঝতে পারবেন। কিছু তথ্য দেওয়া হয় যেমন IEEE স্ট্যান্ডার্ড, ডেটা রেট, মিডিয়া টাইপ এবং সর্বোচ্চ দূরত্ব।

ইথারনেট তারের প্রকারভেদ

ইথারনেট কিভাবে কাজ করে (How To Work Ethernet)

কম্পিউটার বিজ্ঞানের কিছু জ্ঞান থাকলে আপনি সহজেই বিষয়টি বুঝতে পারবেন। কিন্তু আমরা আপনাকে সহজ ভাষায় বুঝানোর চেষ্টা করঠি। আপনি জানেন যে ইথারনেট একটি ল্যান প্রযুক্তি। যেখানে ডেটা ” প্যাকেট এবং ফ্রেম ” ইউনিটে ভ্রমণ করে । এটি উপরেও ব্যাখ্যা করা হয়েছে যে এটি CSMA/CD (Collision Sense Multiple Access/ Collision Detection) মেকানিজম ব্যবহার করে।

CSMA/CD এর সাহায্যে, যখনই ইথারনেট নেটওয়ার্কের একটি কম্পিউটার অন্য কম্পিউটারে একটি প্যাকেট (ডেটা) পাঠায়। তারপরে এটি মূল তারটি অনুধাবন করে (প্রধান কেবলটিতে ইতিমধ্যে একটি প্যাকেট আছে কিনা তা জেনে নিন)। যদি তারের মধ্যে কোন প্যাকেট না থাকে, তাহলে ইথারনেট প্যাকেটটিকে প্রধান তারে পাঠায়। (মূল তারটি একই যেটির সাথে সমস্ত কম্পিউটার সংযুক্ত থাকে) নেটওয়ার্কের সমস্ত ডিভাইস বা কম্পিউটার সেইটির গন্তব্য ঠিকানার সাথে সংযুক্ত থাকে। প্যাকেট এর ঠিকানাটা পরীক্ষা করে। আর যার কাছে সে ঠিকানা পায়, সে সেই প্যাকেট নিয়ে যায়।

যদি প্রধান কেবলটি ব্যস্ত থাকে তবে সেই কম্পিউটারটি 1000 পর্যন্ত 1 সেকেন্ডের জন্য অপেক্ষা করে এবং যখনই মূল তারটি খালি থাকে তখন এটি প্যাকেটে ফেরত পাঠায়। CD মানে নেটওয়ার্কের কোথাও কোনো Trafic Jam থাকলে Collision Detection এর সাহায্যে। তাই এটি এটি সনাক্ত করে এবং এটি অন্য ডিভাইসে বলে। এখন পর্যন্ত আপনি জানেন ইথারনেট কি এবং এটি কিভাবে কাজ করে। তবে এবার ইথারনেট ক্যাবল সম্পর্কে একটু জেনে নেওয়া যাক।

ইথারনেট তারের প্রকারভেদ (Types Of Ethernet Cable)

যাইহোক, এখানে ইথারনেট তারের ক্যাটাগরি, তারের ধরন এবং সর্বোচ্চ ডেটা ট্রান্সমিশন স্পিড, সর্বোচ্চ ব্যান্ডউইথ অনুযায়ী নিচের টেবিলে দেওয়া হয়েছে। এটি দিয়ে আপনি সহজেই সবকিছু বুঝতে পারবেন।

Types Of Ethernet Cable

সর্বশেষ কথা

তো প্রিয় পাঠক, আজকের তথ্যগুলো নিশ্চয় আপনার জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ ছিল। বিশেষ করে আপনি যদি একজন ছাত্র হন। কারণ কম্পিউটার নেটওয়ার্কে এই প্রশ্ন আসে, ইথারনেট কি  এবং কত প্রকার। 

আমি এটা বলব, আপনি যদি এখনও ল্যান এবং রাউটারের সাহায্যে ইন্টারনেট চালান, তাহলে আজকে আমরা যা জানি তার নিজের গৌরব। একটি গুরুত্বপূর্ণ বিষয় আপনি যদি একটি নতুন কম্পিউটার কেনেন, তাহলে আপনি এটির সাথে ইথারনেট কেবলও নিবেন, যাতে করে আপনি খুব সহজেই আপনার কম্পিউটারটি সেই ক্যবলের সাহায্যে নেটওয়ার্কে যুক্ত হতে পারেন। 

আপনি যদি এই আর্টিকেলটি সম্পর্কে কোন প্রশ্ন করতে চান, তাহলে অবশ্যই নিচের কমেন্ট বক্সে লিখুন। আর যদি কোন সাজেশন দিতে চান তাহলে অবশ্যই দিবেন যাতে আমরা নতুন কিছু করতে পারি। আপনি যদি এখনও আমাদের ব্লগে সাবস্ক্রাইব না করে থাকেন, তাহলে অবশ্যই সাবস্ক্রাইব করুন। 

Leave a Comment

Your email address will not be published.